ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতায় সৌদি নারীদের নৈপুণ্য

5

ঠিকানা ডেস্ক : সৌদি আরবের বন্দরনগরী জেদ্দায় তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হয়। ওই প্রতিযোগিতায় মধ্যপ্রাচ্য ছাড়াও বিশ্বের অন্যান্য দেশের নারীরা অংশ নেন। বেশ কয়েকটি স্থানীয় ও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে সৌদি নারী ঘোড় সওয়ারিরা অশ্বারোহণে অসাধারণ দক্ষতার স্বাক্ষর রেখেছেন।
সামা হুসেইনের নেতৃত্বে ‘সামা আল খলিল টিম’ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। সৌদি নারীদের দলের প্রধান বলেন, টুর্নামেন্টে সৌদি আরবের নারী ঘোড় সওয়ারিরা ১৪ মিনিটের মধ্যে ঘোড়দৌড় প্রদর্শন, প্রতিবন্ধকতা লাফিয়ে পার হওয়াসহ আরো কয়েকটি ইভেন্টে অংশ নেন।
তিনি বলেন, অশ্বারোহণ খেলার জন্য আবেগে আমরা ৫টি দল গঠন করেছিলাম। পাঁচজন অশ্বারোহী নেত্রী হলেন নাদা আল কাহতানি, খোওলুদ আল শাম্মারি, আরিজ শাফি, দুয়া ফেইদ ও হানিন বালুবাইদ। এই পাঁচজনের নেতৃত্বে আরো চারজন করে মোট ২০ জন ছিলেন তাদের দলে; যাতে কঠিন মুহূর্তে প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে যেতে না হয়। ৮৮তম জাতীয় দিবসে আমরা প্রথমবারের মতো ঘোড়দৌড়ে অংশ নিয়েছিলাম। ওই অনুষ্ঠানে আমাদের পৃষ্ঠপোষকতা করেছে সৌদির জেনারেল অথরিটি ফর এন্টারটেইনমেন্ট। জেদ্দাজুড়ে অশ্বারোহী বিভিন্ন ক্লাবে অশ্বারোহণের প্রশিক্ষণে অংশ নেয় দলগুলো।
তিনি আরো বলেন, ‘আমি সওয়ারিদের পোশাক-পরিচ্ছদ এমনভাবে ডিজাইন করেছিলাম, যাতে প্রতিবন্ধকতা লাফিয়ে পার হওয়ার প্রতিযোগিতার সময়ও পর্দা রক্ষা হয়। অশ্বারোহণ প্রতিযোগিতার সময় বাধা লাফিয়ে পার হওয়ার বিষয়টিকে সবচেয়ে কঠিন ও বিপজ্জনক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।’ তিনি আরো বলেন, ‘সৌদি অশ্বারোহী নারীরা সাফল্য অর্জন করেছে, আমরা পেশাদার অশ্বারোহী এবং আমরা প্রশিক্ষণের মাধ্যমে শ্রেষ্ঠত্বের সন্ধান করছি। প্রিন্স খালেদ আল ফয়সাল সাম্প্রতিক প্রদর্শনী নিয়ে সন্তুষ্ট ও গর্ব প্রকাশ করেন।’
আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের জন্য নবীন প্রতিভাধরদের বাছাই ও তাদেরকে প্রশিক্ষণ দিয়ে আরো উন্নত করার প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন সামা। সৌদি আরবে সবার জন্য প্রবেশযোগ্য করে খেলাটিকে বিকশিত করতে বলেন তিনি। কেননা সবচেয়ে ব্যয়বহুল ক্রীড়াগুলোর একটি হলো অশ্বারোহণ। এবারের প্রতিযোগিতায় বিজয়ী নারীদের মাথায় মুকুট পরিয়ে দেন যুবরাজ খালিদ আল ফয়সাল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here