২ বছরেও গ্রেপ্তার হয়নি ভারগাসের খুনি

4

ঠিকানা রিপোর্ট: ২০১৭ সালের ২৯ জানুয়ারি উডহ্যাভেনের ৮৯ এভিনিউর নিকটবর্তী ৯১ স্ট্রীটে নৃশংভাবে খুন হয়েছিল এফরেইন ভারগাস। অথচ হত্যাকান্ডের প্রায় ২ বছর অতিক্রান্ত হতে চললেও ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভারগাসের খুনীকে গ্রেপ্তারপূর্বক আদালতের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো সম্ভব হয়নি বলে জানিয়েছেন পুত্র শোকাতুরা জননী ক্রিস্টিনা ভার্নাল।
কুইন্সের বাসিন্দা ভার্নাল অশ্রুসজল কন্ঠে বলেন, মৃত্যুকালে তার পুত্রের বয়স ছিল ২৪ বছর এবং ডিসেম্বর তা ২৬তম বর্ষে পা দেয়ার কথা ছিল। অথচ নিয়তির নির্মম বিধানে বর্বর খুনী তার প্রাণপ্রিয় পুত্রের জীবন কেড়ে নিল নিতান্ত অপরিণত বয়সেই। তিনি আরও বলেন, তার পুত্র হেইট ক্রাইম এবং চরম শত্রুতার শিকার হয়েছিল এবং যে সকল লোকের সাথে তারাই যথাসম্ভব তার পুত্রকে খুন করেছিল। তিনি আরও জানান, তার পুত্র ভারগাসের সাথে রুমমেটদের বেশ কয়েকবার সংঘাত হয়েছিল এবং হৈ চৈ, ঝগড়াঝাটি ও অন্যান্য অভিযোগে পুলিশ কয়েক দফা বাড়িতে আগমন করেছিলেন।
ভার্নাল আরও জানান, ভারগাস খুন হওয়ার পর তিনি তার বন্ধু-বান্ধবদের কয়েকবার নিজের বাসায় নিমন্ত্রণ করেছিলেন, তাদেরকে যথেষ্ট আপ্যায়ন করেছেন প্রকৃত সত্য জানার জন্য। কিন্তু তার সে চেষ্টা সফল হয়নি বলে দাবি করেন। ভার্নাল আরও দাবি করেন যে তার নিহত পুত্র কারও নিকট ধার-দেনা করেনি, সে দুষ্ট প্রকৃতির কিংবা দস্যু ধরনের কিংবা মাদকাসক্ত ছিলনা। সে এপার্টমেন্ট কেনার জন্য কিছু অর্থও গোপনে সঞ্চয় করেছিল।
নৃশংস হত্যাকান্ডের আগে ভারগাস তার মাকে বলেছিল যে তার রুমমেটদের সকলেই সমস্যাগ্রস্ত এবং তারা তাকে নানাভাবে জ্বালাতন করত। তাই হত্যাকান্ডের ২ সপ্তাহ আগে তার একটি আগ্নেয়াস্ত্র কেনার প্রয়োজন ছিল বলেও ভারগাস তার মাকে জানিয়েছিল। তিনি আরও জানান, কয়েক দিন ধরে পুত্রের কোন ফোন কল না পেয়ে এবং নিজেও পুত্রকে কল করে কোন জবাব না পাওয়ায় তিনি পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ২ ফ্যামিলি হাউজের তালাবদ্ধ সিঙ্গেল রুম অকুপেন্সী এপার্টমেন্টে ভারগাসের মরদেহ দেখতে পেয়েছিল। পুলিশের পক্ষ থেকে খুনীকে গ্রেপ্তারের জন্য সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে দাবি করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here