একদিকে শাটডাউন অন্যদিকে মজুরি বৃদ্ধি

4

ঠিকানা রিপোর্ট: সীমান্ত প্রাচির নির্মাণের প্রয়োজনীয় ৫.৬ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দে ডেমক্র্যাটরা সম্মত না হলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কংগ্রেসে পাশ হওয়া সকল বিলের বিরুদ্ধে ভেটো প্রয়োগের হুমকি দেয়ার পরিপ্রেক্ষিতে আংশিক শাটডাউন ইতোমধ্যে ৩ সপ্তাহ অতিক্রম করতে চলেছে। আর সেক্রেটারী, ডেপুটি সেক্রেটারিদের মজুরি বৃদ্ধির উপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা কার্যকর না হওয়ায় ইতোমধ্যে ভাইসপ্রেসিডেন্টসহ ট্রাম্প প্রশাসনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বার্ষিক মজুরি গড়ে ১০ হাজার ডলার হারে বেড়ে গেছে।
এমনতর বাস্তবতায় সিনেট মাইনরিটি লিডার চাক শ্যুমার স্পষ্ট ঘোষণা করেছেন যে রিপাবলিকানরা ট্রাম্পের হঠকারি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান না নিলে তিনি মধ্যপ্রাচ্য সংশ্লিষ্ট বৈদেশিক নীতিমালা আটকে দিবেন। নিউ ইয়র্ক থেকে নির্বাচিত ডেমক্র্যাটিক দলীয় ইউএস সিনেটর শ্যুমার তার ককাসকে জানিয়ে দিয়েছেন যে তিনি আমেরিকান নিরাপত্তা জোরদার বিষয়ক মধ্যপ্রাচ্য অ্যাক্টের বিরুদ্ধে ভোট দিবেন। উক্ত অ্যাক্টের আওতায় ই¯্রায়েলের জন্য অধিকতর সিকিউরিটি ফান্ড বরাদ্দ এবং সিরিয়াসহ জর্ডানের সাথে আমেরিকার চুক্তি বাস্তবায়ন করা হয়।
শ্যুমার আরও অভিযোগ করেন যে শাটডাউন অব্যাহত থাকায় মেট্রো এলাকায় ৫০ হাজার সরকারি কর্মচারি চরম ভোগান্তি পোহাচ্ছেন।
কংক্রিটের স্থলে স্টিল ওয়াল: এদিকে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সীমান্তে কংক্রিটের স্থলে স্টীল ওয়াল নির্মাণে সম্মত হলেও অনুরোধকৃত ৫.৬ বিলিয়ন ডলার বরাদ্দের প্রশ্নে অটল রয়েছেন। আমেরিকা-মেক্সিকো সীমান্তে প্রাচির নির্মাণে ট্রাম্পের প্রস্তাবের বিরোধিতাকারী ডেমক্র্যাটদের প্রতি ইঙ্গিত করে ৭ জানুয়ারি হোয়াইট হাউজে ট্রাম্প বলেন, তারা কংক্রিট চাননা বিধায় স্টীল হলেও চলবে। তবে অনুরোধকৃত ৫.৬ বিলিয়ন ডলারের ব্যাপারে কোন ছাড় দেয়া হবেনা।
ট্রাম্প আবারও সাউদার্ন বর্ডার ওয়াল নির্মাণে গতি সঞ্চারের জন্য প্রয়োজনে ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি ঘোষণার সম্ভাব্যতা পুনর্ব্যক্ত করেন। তবে সরকারের এক্সিকিউটিভ ব্রাঞ্চ (নির্বাহী শাখা) ন্যাশনাল ইর্মাজেন্সি ঘোষণা করলে কিভাবে ওয়াল নির্মাণের অর্থের যোগান আসবে সে ব্যাপারে ট্রাম্প বিস্তারিত কিছু বলেননি। ট্রাম্পের উল্লেখিত ঘোষণার পূর্বেই শাটডাউনের ইতি ঘটানোর পন্থা উদ্ভাবনের নিমিত্ত হাউজ স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি এবং সিনেট মাইনরিটি লিডার চাক শ্যুমারের এইডগণ ভাইসপ্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সের সাথে রুদ্ধদ্বার আলোচনায় বসলেও কার্যত তা নিষ্ফল হয়েছে।
এরও আগে ৪ জানুয়ারি ট্রাম্প হুমকি দিয়েছিলেন যে প্রয়োজনে শাটডাউন মাসের পর মাস এমনকি বছরেরও অধিক চলতে পারে। রোজ গার্ডেনে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প জোর দিয়ে বলেন যে ন্যাশনাল ইমার্জেন্সি জারির একচ্ছত্র অধিকার তার রয়েছে।
মজুরি বেড়েছে ট্রাম্প প্রশাসনের কর্মকর্তাদের
২১ ডিসেম্বর ডেমক্র্যাটিক দলীয় সিনেটরগণ ট্রাম্পের প্রস্তাবিত সীমান্ত প্রাচির নির্মাণের অর্ধ বরাদ্দে ঘোর বিরোধিতা করায় আমেরিকার ৮ লক্ষাধিক ফেডারেল কর্মচারি বিনা মজুরিতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে প্রায় ৩ সপ্তাহ ধরে। অথচ এরই মধ্যে জনপ্রতি প্রায় ১০ হাজার ডলার হারে মজুরি বেড়ে গেছে রাজনৈতিক নিয়োগপ্রাপ্ত এবং ট্রাম্প প্রশাসনের কর্মকর্তাদের। অবশ্য কর্মকর্তাদের মজুরি বৃদ্ধির পেছনে ট্রাম্পের কোন হাত ছিলনা।
লক্ষ্যণীয়, ২০১৩ সালে কংগ্রেস ফেডারেলের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সর্বোচ্চ মজুরি নির্ধারণ এবং বার্ষিক মজুরি বৃদ্ধির উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে একটি আইন প্রণয়ন করেছিল। অবশ্য আইনটির শর্তানুযায়ী প্রতি বছরের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে নিষেধাজ্ঞা পুনঃনবায়নের কথা ছিল। কিন্তু এ বছর ২১ ডিসেম্বরের পর কংগ্রেস ও সিনেটের অধিবেসন না হওয়ায় এবং নতুনভাবে নিষেধাজ্ঞা নবায়ন না হওয়ায় স্বয়ংক্রিয়ভাবে ক্যাবিনেট সেক্রেটারী, ডেপুটী সেক্রেটারী, শীর্ষ অ্যাডমিনিস্ট্রেটর ও ভাইস প্রেসিডেন্টের মজুরি বেড়ে গেল বলে অফিস অব পার্সোনাল ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে ৫ জানুয়ারি জানানো হয়েছে।
বর্ধিত হারে ক্যাবিনেট সেক্রেটারিদের বেতন হবে বার্ষিক বর্তমান ১লাখ ৯৯ হাজার ৭০০ ডলারের স্থলে ২ লাখ ১০ হাজার ৭০০ ডলার; ডেপুটি সেক্রেটারিদের মজুরি হবে বার্ষিক ১লাখ ৭৯ হাজার ৭০০ ডলারের স্থলে ১লাখ ৮৯ হাজার ৭০০ ডলার। আর ভাইস প্রেসিডেন্টের বার্ষিক মজুরি হবে বার্ষিক ২ লাখ ৩০ হাজার ৭০০ ডলারের স্থলে ২লাখ ৪৩ হাজার ৫০০ ডলার। অবশ্য ভাইসপ্রেসিডেন্ট বর্ধিত মজুরি গ্রহণ করবেন না বলে জানিয়েছেন। সেক্রেটারী এবং অন্যান্যদের মজুরি বৃদ্ধির জন্য হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র সারাহ হুকাবী স্যান্ডারস ডেমক্র্যাটদের প্রতি দোষারোপ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here