প্রক্রিয়াজাত খাবার উদ্বেগ বাড়ায় ফুড অ্যাডিটিভ

3

ঠিকানা ডেস্ক : আধুনিক মানুষের খাদ্যতালিকার বিরাট অংশজুড়ে রয়েছে প্রক্রিয়াজাত খাবার। সংরক্ষণ ও উপস্থাপনের সুবিধার্থে এসব খাবারে থাকে নানা সংযোজন বা অ্যাডিটিভ। খাবারে প্রিজারভেটিভ ও কালারিং হিসেবে দেয়া নানা রাসায়নিক ও প্রাকৃতিক অ্যাডিটিভ উদ্বেগ ও অস্থিরতা বাড়ায় বলে একাধিক গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে।
ফুড ডাই থেকে শুরু করে ট্রান্স ফ্যাটস পর্যন্ত বিভিন্ন অ্যাডিটিভের বিরূপ প্রভাব সম্পর্কে বিশেষজ্ঞদের সন্দেহ ছিল আগে থেকেই। যুক্তরাষ্ট্রে এক গবেষণায় দেখা গেছে, বহুল ব্যবহূত অ্যাডিটিভ সোডিয়াম বেনজয়েটের কারণে খাবারগ্রহীতার উদ্বেগের প্রবণতা বেড়ে যেতে পারে। সোডা, জুস, কনডিমেন্টসে প্রিজারভেটিভ হিসেবে ব্যবহূত হয় এ রাসায়নিক।
মিষ্টি, বিস্কুটসহ হরেক রকমের খাবারে কালারিং হিসেবে ব্যবহূত হয় টারটাজিন ই১০২, সানসেট ইয়েলো ই১১০, কারমইজিন ই১২২, পনচু ফোরআর ই ১২৪ ইত্যাদি অ্যাডিটিভ। এর সঙ্গে থাকে প্রিজারভেটিভ সোডিয়াম বেনজয়েট। এসব অ্যাডিটিভ শিশুর মনে উদ্বেগ, অস্থিরতা, মেজাজ দেখানো ও অন্যকে বিরক্ত করার প্রবণতা সৃষ্টি করতে পারে বলে জানিয়েছেন ব্রিটেন ও স্কটল্যান্ডের ফুড কমিশনের গবেষকরা। ইউকে অ্যাজমা অ্যান্ড অ্যালার্জি রিসার্চ সেন্টারে ২২৭ শিশুকে মাসব্যাপী পর্যবেক্ষণের পর ফুড কমিশনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কৃত্রিম কালারিং ও প্রিজারভেটিভ খাবারগ্রহীতার আচরণে উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন আনে। সূত্র: অ্যাংজাইটিডটওআরজি ও ফুড ম্যাটারস।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here