শাটডাউন এড়াতে নতুন সমঝোতা

11


ঠিকানা রিপোর্ট : একনাগাড়ে ৩৫ দিন আংশিক শাটডাউন চলার পর অবশেষে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দলীয় পরামর্শক এবং প্রভাবশালীদের চাপে ৩ সপ্তাহের জন্য সাময়িকভাবে শাটডাউন প্রত্যাহার করেছিলেন। অবশ্য শর্ত হিসেবে ট্রাম্প জুড়ে দিয়েছিলেন যে নতুন স্পেন্ডিং বিল পাশ হওয়ার পূর্বেই প্রাচির নির্মাণের জন্য তার প্রস্তাবিত ৫.৭ বিলিয়ন ডলার অবশ্যই বরাদ্দ দিতে হবে। ডেমক্র্যাটগণ প্রাচির নির্মাণের জন্য সর্বসাধারণের ট্যাক্সের অর্থ থেকে কানাকড়ি বরাদ্দ দিতে রাজি না হলেও শেষ পর্যন্ত উভয় পক্ষ নতুন শাপডাউন এড়াতে বাইপার্টিসান (দ্বিপাক্ষিক) স্পেন্ডিং সমঝোতায় উপনীত হয়েছে বলে ১২ ফেব্রুয়ারি জানা গেছে।
উভয় দলীয় আইনপ্রণেতাদের বাইপার্টিসন কনফারেন্স কমিটির রুদ্ধদ্বার বৈঠকের পর আলাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর রিচার্ড শেলভী এবং ওয়েস্টচেস্টারের ডেমক্র্যাটিক দলীয় রিপ্রেজেনটেটিভ নিটা লোই উক্ত সমঝোতার ঘোষণা দেন। উল্লেখ্য, পুনরায় বড় ধরনের আর্থিক সঙ্কট সৃষ্টির আগেই সারা বছরের ব্যয় পরিকল্পনা প্রস্তুতির দায়িত্ব বাইপার্টিসন কনফারেন্স কমিটির উপর ন্যস্ত করা হয়েছিল। যাহোক, কি ধরনের সমঝোত হয়েছে সে ব্যাপারে বিশদ ব্যাখ্যা না দিয়ে শুধুমাত্র বলা হয়েছে যে নীতিগতভাবে সমঝোতায় পৌঁছা গেছে।
এদিকে ডেমক্র্যাটিক কংগ্রেশনাল এইড জানিয়েছেন যে ৫৫ মাইল বোলার্ড ফেন্সিংয়ের (পোতাদির উপর খুঁটির জাতীয় বেড়ার) জন্য ১.৩৭৫বিলিয়ন ডলার টাক এয়েতে ( থোক বরাদ্দে) কমিটি সম্মত হয়েছে। উক্ত এইড বলেন, প্রাচির নির্মাণের জন্য অর্থ দেয়া হবেনা। এছাড়াও ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট এজেন্সীর নিয়ন্ত্রণাধীন ডিটেনশন বেডের সংখ্যা ১৭.৪% হ্রাস করে ৪৯,০৫৭ থেকে ৪০,৫২০ করার প্রস্তাবেও কমিটি সম্মত হয়েছে। মূলত অবৈধ অভিবাসীদের যুক্তরাষ্ট্র থেকে বিতাড়িত করার ট্রাম্প প্রশাসনের গৃহিত পদক্ষেপের পটভূমিতেই ডিটেনশন বেডের সংখ্যা কমানো হয়েছে।
ক্যালিফোর্নিয়ার ডেমক্র্যাটিক দলীয় রিপ্রেজেনটেটিভ লুসিলে রায়বাল আলাড বলেন, আইন মান্যকারী যে সকল অভিবাসী আমাদের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে তাদের বিতাড়িত করার উদ্যোগ না নিয়ে ইমিগ্রেশন অ্যান্ড কাস্টম এনফোর্সমেন্ট এজেন্টদের উচিত ক্রিমিনাল এবং আমাদের নিরাপত্তার প্রতি হুমকি স্বরূপদের বিতাড়িত করার উদ্যোগ নেয়া। ডেমক্র্যাটগণ শুরুতে প্রত্যহ সর্বোচ্চ ১৬,৫০০ কয়েদীকে অন্তরিণ রাখার মত আবাসন বরাদ্দের প্রস্তাব দিয়েছিলেন। কিন্তু রিপাবলিকানদের প্রতিবাদের মুখে তাদের সে উদ্যোগ ভেস্তে গেছে।
শেলবী এবং লোই বিলটি সম্পর্কে অনতিবিলম্বে বিশদ ব্যাখ্যা দেয়ার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন এবং আগামী সপ্তাহেই বিলটি ভোটাভুটির জন্য সিনেট এবং হাউজে উপস্থাপিত হবে বলে জানান। তাছাড়া ১৫ ফেব্রুয়ারি শাটডাউনের ডেড লাইনের আগেই তা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ডেস্কে যাবে বলেও তারা নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here