পারসোনাল ইনজুরি মামলায় নিউইয়র্ক স্টেট এটর্নি এম মোস্তফা

২.৮৬ মিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ আদায়

177

ঠিকানা রিপোর্ট : বাঙালির গর্ব নিউইয়র্ক স্টেট এটর্নি এম মোস্তফা গত ২০ আগস্ট ২০১৮ ব্রুকলিনের ফেডারেল কোর্টের সিনিয়র বিচারপতি জাফরি ওয়েনস্টাইল এর কোর্টে তিনি ২.৮৬ মিলিয়ন ডলারের এই অবিস্মরণীয় রায় পান। বাঙালি একটি পরিবারের লিড আক্রান্ত ২টি শিশুর জন্য তিনি ও অন্য একজন অবাঙালি এটর্নি আদায় করেন বিশাল অংকের এই ক্ষতিপূরণ।
এটর্নি মোস্তফা জানান, নিউইয়র্কস্থ বাঙালি কম্যুনিটির প্রয়োজন পূরণের জন্য আরো অনেক বাঙালিকে নিউইয়র্ক স্টেটে আইন ব্যবসার লাইসেন্স নিতে হবে। যদিও তা অনেক কষ্টসাধ্য। আর তাইতো পারসোনাল ইনজুরি মূল প্রাকটিস হলেও কম্যুনিটির প্রয়োজন এটর্নি মোস্তাফা বাঙালির প্রাণকেন্দ্র জ্যাকসন হাইটস এর ৭২-২৬ ব্রডওয়ের ৩য় তলার অফিস থেকে ওয়ার্কার্স কমপেনসেশন, ইমিগ্রেশন, ফ্যামিলি ম্যাটার রিয়েল এস্টেটসহ সকল সিভিলও ক্রিমিনাল ম্যাটারে কম্যুনিটিকে বিশেষভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। এটর্নি মোস্তফা তার এই কম্যুনিটির সেবাকে একটি বিশেষ নৈতিক দায়িত্ব মনে করেন। তার ভাষায়, আমাদের দেশি ভাই-বোনদের একটি বড় অংশ ইংরেজিতে যথোপযুক্তভাবে নিজের মনের কথাগুলো প্রকাশ করতে সক্ষম নন। ফলে বাঙালি দোভাষীদের মাধ্যমে অন্যভাষী আইনজীবীদের শরণাপন্ন হন। নিজের মনের কথাগুলো দোভাষীর মাধ্যমে যখন অন্য আইনজীবী বা কোর্টকে বোঝানোর চেষ্টা করেন তখন অনেক তথ্য অনেক সময় বাদ পড়ে যায়। ফলে বিচার প্রার্থী অনেক ক্ষেত্রেই তার অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে ব্যর্থ হন। এটর্নি মোস্তফা জানান, তার আদায়কৃত ২.৮৬ মিলিয়ন ক্ষতিপূরণ তার অন্যতম উদাহরণ। এই মামলার সাক্ষ্য গ্রহণের সময় বাঙালি দোভাষী ক্লায়েন্টদের কথাগুলো যথোপযুক্তভাবে উপস্থাপন করতে অনেক বার ব্যর্থ হয়। সেই সময় এটর্নি মোস্তফার হস্তক্ষেপে তা সংশোধন করা হয়। শুধু তাই নয়, কখনও কখনও অর্জিত ক্ষতিপূরণও ক্লায়েন্টদের ভাগ্যে জুটে না। অধিকাংশ ক্ষতিপূরণ চলে যায় মামলার খরচ বাবদ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি এবং মামলা পরিচালনাকারী এটর্নির ফিস বাবদ। বর্তমান আলোচ্য মামলা পরিচালনার জন্য ক্লায়েন্ট বাঙালি পরিবার ভিন্নভাষী একজন এটর্নিকে রিটেইন করেন। মামলার খরচ সরবরাহের জন্য সেই প্রথম এটর্নি ইন্স্যুরেন্স ক্রয় করতে চাপ প্রয়োগ করেন। মামলার খরচ সরবরাহের বিনিময়ে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি অর্জিত অর্থের ৪৫% দাবি করে অগ্রিম চুক্তি করতে আগ্রহী বলে ভিন্নভাষী প্রথম এটর্নি জানান। প্রথম এটর্নি ইন্স্যুরেন্স ক্রয় ছাড়া নিজস্ব অর্থায়নে মামলা পরিচালনা করতে অস্বীকৃতি জানান। আর এ কারণেই আলোচ্য মামলাটিতে ক্লায়েন্টদের বাবা-মা শরণাপন্ন হন এটর্নি এম মোস্তফা। ভিন্নভাষী প্রথম এটর্নি অযৌক্তিকভাবে মামলার খরচ বিনিয়োগ করতে অস্বীকার করে ইন্স্যুরেন্স করতে না বললে তারা এটর্নি মোস্তফা এই মামলায় অংশগ্রহণ না করলে ভিন্নভাষী প্রথম এটর্নির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী অর্জিত ও ২.৮৬ মিলিয়ন ডলারের ৪৫% (১২,৮৭০০০.০০) পেতো। মামলার খরচ বহনকারী ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি যেখানে নিজস্ব অর্থায়নে খরচ বহন করার কারণে খরচ হয়েছে মাত্র ৫০ হাজার ডলারের কাছাকাছি। ভিন্নভাষী প্রথম এটর্নির সিদ্ধান্তের বিপরীতে এটর্নি এম মোস্তফা মামলার খরচ পরিচালনার জন্য ইন্স্যুরেন্সের পরিবর্তে নিজের খরচে মামলা পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেন এবং ক্লায়েন্টদের হাতে অতিরিক্ত ১২ লাখ ৩৭ হাজার ডলার তুলে দিতে সক্ষম হন। এটর্নি মোস্তফা আরো জানান, ভিন্নভাষী প্রথম এটর্নি শিশু ক্লায়েন্টদের জন্য অর্জিত সমুদয় অর্থ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে জমা রাখার সিদ্ধান্ত নেন। এটর্নি মোস্তফার হস্তক্ষেপে অর্জিত ক্ষতিপূরণ হতে শিশুদের জন্য একটি বাড়ি কেনার অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয় যাতে করে বাচ্চারা সুন্দর পরিবেশে বেড়ে উঠার সুযোগ পায় এবং অবশিষ্ট অর্থ তাদের কল্যাণে বিভিন্নভাবে গচ্ছিত রাখা হয়। এটর্নি মোস্তফা জানান, নিউইয়র্ক স্টেট এটর্নি হিসেবে নিউইয়র্ক স্টেটের সকল কোর্ট এবং ফেডারেল কোর্টে মামলা পরিচালনার জন্য তিনি লাইসেন্সপ্রাপ্ত। যে কারণে নিউইয়র্ক ফেডারেল ইস্টার্ন ডিস্ট্রিক্ট কোর্টে চলা এই মামলায় তিনি সরাসরি অংশগ্রহণ করেন। নিউইয়র্ক স্টেট এটর্নি হিসেবে তার এই স্বাধীনতার সর্বোচ্চ ব্যবহারের মাধ্যমে তিনি ৬ দিনে একজন ব্যাংকারের ইবি ভিসার অনুমোদন পান। এছাড়াও তার অফিস ওয়ার্কার্স কমপেনসেশনের মামলায় শতাধিক হাজার ডলার রিকভারির মাধ্যমে ক্ষতিগ্রস্ত অনেক কর্মচারীর পাশে দাঁড়িয়েছেন। এটর্নি মোস্তফার ধর্ম-বর্ণ দলমতের ঊর্ধ্বে কম্যুনিটির স্বার্থে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার বিনীত অনুরোধ জানান।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here