বিশ্বে ১৬ বছরে গড় আয়ু বেড়েছে ৫.৫ বছর

4

ঢাকা : বিশ্বে ২০০০ সালের পর ১৬ বছরে মানুষের গড় আয়ু সাড়ে পাঁচ বছর বৃদ্ধি পেয়ে ৭২ বছরে উন্নীত হয়েছে। একই সময়ে মানুষের পূর্ণ স্বাস্থ্যের আয়ুষ্কাল ৪.৮ বৃদ্ধি পেয়ে ৬৩.৩ বছরে উন্নীত হয়েছে। আর মানুষের এই আয়ুষ্কাল বৃদ্ধিতে সবচেয়ে বড় ভূমিকা রাখে মানুষের উপার্জন। ফলে উন্নত ও অনুন্নত দেশে মানুষের গড় আয়ুর ব্যবধান ১৮.১ বছর। গত ৪ এপ্রিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডাব্লিউএইচও) প্রকাশ করা ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য পরিসংখ্যান ২০১৯’-এ এ তথ্য তুলে ধরা হয়।

প্রতিবেদনে প্রথমবারের মতো পুরুষের চেয়ে নারীর গড় আয়ু বেশি হওয়ার কারণও উল্লেখ করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, ক্ষেত্রবিশেষে নারীর তুলনায় পুরুষের স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণে অনীহা, সড়ক দুর্ঘটনা এবং প্রতিরোধযোগ্য ও নিরাময়যোগ্য অসংক্রামক রোগে পুরুষ বেশি মারা যায়।

জেনেভায় ডাব্লিউএইচওর সদর দপ্তর থেকে গত ৪ এপ্রিল এই প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, বিশ্বের সর্বত্রই পুরুষের চেয়ে নারীরা বেশি দিন বাঁচে। বিশেষ করে ধনী দেশগুলোতে এ কথা অধিক প্রযোজ্য।

অন্য দিকে ভিন্ন একটি প্রতিষ্ঠানের প্রতিবেদনে জানা যায়, ১৬ বছরে বিশ্বে মানুষের গড় আয়ু সাড়ে পাঁচ বছর বাড়লেও একই সময়ে বাংলাদেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে সোয়া সাত বছর।

১৬ বছরে গড় আয়ু বৃদ্ধি : ২০০০ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে সাড়ে পাঁচ বছর। ফলে বিশ্বে মানুষের গড় আয়ু ৬৬.৫ বছর থেকে ৭২ বছরে উন্নীত হয়েছে। একই সময়ে মানুষের পূর্ণ স্বাস্থ্যের আয়ুষ্কালও ৪.৮ বছর বৃদ্ধি পেয়ে ৫৮.৫ থেকে ৬৩.৩ বছরে উন্নীত হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, মানুষের আয়ুষ্কাল নির্ধারণে শক্তিশালী ভূমিকা রাখে মানুষের আয়। এ কারণে উন্নত ও অনুন্নত দেশের মধ্যে মানুষের গড় আয়ুর ব্যবধান ১৮.১ বছর। অনুন্নত দেশে প্রতি ১৪টি শিশুর একটি মারা যায় তাঁর পঞ্চম জন্মদিন পালনের আগেই।

প্রসঙ্গ বাংলাদেশ : বাংলাদেশে ২০০০ থেকে ২০১৬ সালের মধ্যে গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে বৈশ্বিক গড় আয়ুর চেয়ে বেশি। কান্ট্রিইকোনমিক ডটকমের মতে, ২০০০ সালে বাংলাদেশের গড় আয়ু ছিল ৬৫.৩২। এর মধ্যে নারীর গড় আয়ু ছিল ৬৫.৬৮ এবং পুরুষের গড় আয়ু ছিল ৬৪.২৯। কিন্তু ২০১৬ সালে এসে বাংলাদেশে গড় আয়ু যেমন বেড়েছে এবং তেমনি উন্নতির হিসাবে নারীর গড় আয়ুও পুরুষের চেয়ে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। ২০১৬ সালে বাংলাদেশে মানুষের গড় আয়ু দাঁড়িয়েছে ৭২.৪৯ বছরে। এর মধ্যে নারীর গড় আয়ু ছিল ৭৪.২৯ এবং পুরুষের ৭০.৮৯ বছর। অর্থাৎ এই সময়ে পুরুষের থেকে নারীর গড় আয়ু বেড়েছে প্রায় সাড়ে তিন বছর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here