11

ঠিকানা অনলাইন ডেস্ক, ঢাকা: কালবৈশাখী ঝড়ে সিলেটের বিভিন্ন স্থানে বাড়িঘর লন্ডভন্ড হয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে এই ঝড়ে প্রাণহানির কোন ঘটনা ঘটেনি।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকাল ৮টা থেকে ৯ টার মধ্যে সিলেটের উপর দিয়ে বয়ে যায় এই কালবৈশাখী ঝড়।

স্থানীয়রা জানায়, ঝড়ের তাণ্ডবে বাড়িঘর ছাড়াও ফসলি গাছ-গাছালির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সিলেটের গোয়াইনঘাট এলাকার হারুনুর রশিদ জানায়, কালবৈশাখী ঝড়ে উপজেলার রুস্তুমপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় শত শত কাঁচা ও টিনের চালা বিশিষ্ট ঘরবাড়ি ধসে পড়েছে।

সিলেট আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ সাঈদ আহমদ চৌধুরী বলেন, সিলেটের উত্তর ও উত্তর পশ্চিম দিক থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার বেগে কালবৈশাখী ঝড় হয়েছে। এছাড়া ৮টা ১৪ মিনিট থেকে ৯টার মধ্যে খুব অল্প সময়ে প্রায় ৩৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ সময়ের জন্য এটা স্বাভাবিক ঝড়। দুর্বল নেটওয়ার্ক ব্যবস্থার কারণে মানুষকে আগে থেকে সতর্ক করা সম্ভব হয়নি।

এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, টিএন্ডটি থেকে ১০ এমবিপিএস’র সংযোগ আনলেও কার্যত ২ দশমিক ৫ এমবিপিএস স্পিড মিলে। এতে করে নেটওয়ার্কে কাজ করতে দীর্ঘক্ষণ সময় লেগে যায়। বিষয়টি তিনি জেলা প্রশাসনে মাসিক উন্নয়ন সভায় তুলে ধরবেন বলে জানিয়েছেন।

সিলেটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাহবুবুল আলম বলেন, সিলেটের বিভিন্ন স্থানে ঝড়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে প্রাণহানির কোনো ঘটনার খবর পাইনি। তারপরও সব উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে।

এ ব্যাপারে সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সন্দ্বীপন সিংহ বলেন, ঝড়ে সবচেয়ে বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলায়। এছাড়া অন্য উপজেলা গুলোতেও কি পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে, এর প্রতিবেদন পাঠাতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা কাজ করছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here