13

ঠিকানা অনলাইন ডেস্ক, নিউ ইয়র্ক: শক্তিশালী টর্নেডো আঘাত হেনেছে যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণাঞ্চলে। টেক্সাস থেকে মিসিসিপি অঙ্গরাজ্য পর্যন্ত টর্নেডোর আঘাতে এ পর্যন্ত বেশ কয়েকজন মারা গেছেন। একইসঙ্গে ঝড়টি আরও শক্তিশালী এখন দেশের পূর্বাঞ্চলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। নিউ ইংল্যান্ড থেকে উপসাগরীয় উপকূল পর্যন্ত টর্নেডো এবং অন্যান্য বিপর্যস্ত আবহাওয়ার বড় ঝুঁকিতে রয়েছে।

দেশটির ৯০ মিলিয়ন (নয় কোটি) মানুষ ধ্বংসাত্মক আবহাওয়ার এই ঝুঁকিতে রয়েছেন বলে রোববার (১৪ এপ্রিল) জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদ হেলি ব্রিঙ্ক।

তিনি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, পূর্বাঞ্চলের টর্নেডোর আশঙ্কা, শনিবার (১৩ এপ্রিল) দেশের দক্ষিণাঞ্চলে আঘাত হানা ঝড়ের মতো নয়, এটি আরও শক্তিশালী হয়ে বেশি এলাকা ও লোককে প্রভাবিত করতে পারে।

এদিকে, নিউইয়র্ক, ওয়াশিংটন ডিসি এবং আটলান্টা শহরও এই ঝড়ে প্রভাবিত হতে পারে বলে জানিয়েছেন সিএনএনের আবহাওয়াবিদ ধেরেক ভান ধাম।

স্থানীয় সময় রোববার সকালে ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিসের বার্মিংহাম অফিস জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় আলাবামা শহরে, ট্রয় এবং গোশেনের কাছে একটি বড় টর্নেডো আঘাত হানতে পারে বলে রিপোর্ট করা হয়েছে।

ভারী বৃষ্টিপাতসহ এই টর্নেডো হতে পারে বলে আশঙ্কা করছে ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিস (এনডাব্লিউএস)। সংস্থাটি সতর্ক করে বলেছে, টর্নেডো ‘দেখতে বা শুনতে’ কেউ অপেক্ষা করবেন না। দ্রুত এখনই পদক্ষেপ নিন। এই ঝড়ে ব্যাপক কয়ক্ষতি হবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

অ্যাঞ্জেলিনা কাউন্টি শেরিফ ডিপার্টমেন্টের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, শনিবার টেক্সাসের পোলকে ঝড়ে উপড়ে পড়া গাছ চাপায় একটি গাড়ি ভিতরে থাকা তিন ও আট বছর বয়সী দুই ভাইবোন নিহত হয়েছে।

একইদিন সন্ধ্যায় লুইজিয়ানার মনরোতে বৃষ্টির পানিতে উপচে পড়া ড্রেনের মধ্যে ডুবে ১৩ বছর বয়সী সেবাস্টিয়ান ওমর মার্টিনেজের মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন উয়াশিটা প্যারিস শেরিফ দপ্তরের ডেপুটি গ্লেন স্প্রিংফিল্ড।

নিকটবর্তী ক্যালহুনে বন্যার পানিতে গাড়ি ডুবে ভিতরে থাকা এক ব্যক্তি মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

মিসিসিপির গভর্নর ফিল ব্রায়ান্ট জানিয়েছেন, শনিবার কয়েকটি টর্নেডো অঙ্গরাজ্যের ১৭টি কাউন্টিতে তাণ্ডব চালিয়েছে এবং এতে একজন নিহত ও ১১ জন আহত হয়েছেন।

ওই এলাকার ২৬ হাজার বাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিদ্যুৎবিহীন রয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

প্রবল ঝড়বৃষ্টির কারণে রোববার সন্ধ্যা পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে দুই হাজার ৩০০ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। ফ্লাইট বাতিলের অধিকাংশ ঘটনাই শিকাগোর বিমানবন্দরগুলোতে, টেক্সাসের হিউস্টনে, নর্থ ক্যারোলাইনার শার্লোটে, পিটসবার্গ, কলম্বাস, ওহিওতে এবং পূর্ব উপকূলের বিমানবন্দরগুলোতে ঘটেছে বলে ফ্লাইটঅ্যাওয়ার ডটকমের তথ্যে জানা গেছে।

সোমবার সকাল পর্যন্ত ওয়েস্ট ভার্জিনিয়া, নর্থ ক্যারোলাইনার অধিকাংশ এলাকা, ভার্জিনিয়া, পেলসিনভ্যানিয়া, মেরিল্যান্ড এবং ওহিও ও নিউ ইয়র্কের কয়েকটি অংশে টর্নেডোর সম্ভাবনা আছে বলে সতর্ক করা হয়েছে।

ওই এলাকাগুলোতে ঘন্টায় সর্বোচ্চ ১১০ কিলোমিটার বেগে ঝড়সহ ব্যাপক বৃষ্টিপাত হতে পারে বলে জানিয়েছেন ন্যাশনাল ওয়েদার সার্ভিসের (এনডব্লিউএস) ওয়েদার প্রেডিকশন সেন্টারের আবহাওয়াবিদ ডেভিড রথ।

যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যাঞ্চল থেকে পূর্ব উপকূল পর্যন্ত ১০ কোটিরও বেশি লোক বিরূপ আবহাওয়ার ঝুঁকিতে আছে বলে সতর্ক করেছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here