নিউইয়র্কে ৩ ডিসেম্বর থেকে জরুরি অবস্থা জারি

    ঠিকানা অনলাইন : করোনার নতুন রূপ ওমিক্রন-উদ্বেগে আগামী ৩ ডিসেম্বর থেকে নিউইয়র্কে জারি হতে চলেছে জরুরি অবস্থা। মহামারির প্রথম দুটি তরঙ্গের সময় যেসব বিধিনিষেধ জারি হয়েছিল, তেমন বিধিনিষেধও জারি হতে চলেছে নিউইয়র্কে। জরুরি নয়, এমন সব ক্ষেত্র চলে আসবে এর অধীনে।

    নিউইয়র্কের গভর্নর ক্যাথি হোচুল বলেছেন, ‘শীতে এমনিতেই বাড়তে পারে করোনার প্রকোপ। তার মধ্যে বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় ওমিক্রন ছড়ানোর খবর পাওয়া যাচ্ছে। তবে এই রূপটি নিউইয়র্কে এখনো আসেনি। কিন্তু সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবেই এই পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। কারণ আমরা দেখতে পাচ্ছি, সে আসতে চলেছে।’

    করোনাভাইরাসের নতুন ‘বি.১.১.৫২৯’ রূপকে উদ্বেগজনক বা ‘ভ্যারিয়েন্ট অব কনসার্ন’ হিসেবে চিহ্নিত করে সেটিকে ‘ওমিক্রন’ নাম দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু)। নতুন এই রূপ নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে দেশ-বিদেশের বিশেষজ্ঞদের। দক্ষিণ আফ্রিকা এবং বতসোয়ানায় টিকাপ্রাপ্তরাই করোনার নতুন এই রূপটি দ্বারা সংক্রমিত হয়েছেন। শুক্রবার হু জানিয়েছে, নয়া রূপটির ভাবগতিক বুঝতে আরও কয়েক সপ্তাহ সময় লাগবে। তবে বিবৃতিতে তারা বলেছে, এই রূপটির বিপজ্জনক মিউটেশন ঘটেছে। বস্তুত সে কারণেই চিহ্নিত হওয়ার প্রায় সঙ্গে সঙ্গে ঝুঁকির সর্বোচ্চ ধাপে রাখা হলো করোনার এই নতুন রূপকে।

    দক্ষিণ আফ্রিকায় এখন পর্যন্ত যত জন সংক্রমিত হয়েছেন, তাদের ৯০ শতাংশের শরীরেই ওমিক্রনের হদিস মিলেছে। করোনার নতুন এই রূপ বেশি ছড়িয়েছে জোহানেসবার্গে। সেখানকার সংক্রমিতদের মধ্যে অধিকাংশই স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী। ফলে বিজ্ঞানীরা মনে করছেন, নয়া রূপের শিকার হচ্ছে অল্পবয়সীরা। এর থেকে শিক্ষা নিয়েই আগেভাগে পদক্ষেপ নিয়েছে নিউইয়র্ক প্রশাসন। সূত্র : ডেইলি মেইল

    ঠিকানা/এনআই