পাবলিক আমাদেরকে আ.লীগের দালাল বলে : জাপা মহাসচিব

    ছবি সংগৃহীত

    ঠিকানা অনলাইন : জাতীয় পার্টির (জাপা) মহাসচিব ও সংসদ সদস্য মুজিবুল হক চুন্নু বলেছেন, সরকারের অতিরিক্ত প্রশংসা করায় পাবলিক এখন আমাদেরকে আওয়ামী লীগের দালাল (সহযোগী) বলে। আমরা সেই তকমা মুছতে চাই।

    ২৭ নভেম্বর শনিবার জাতীয় সংসদে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সড়ক ও পরিবহন খাতে সরকারের বিভিন্ন সাফল্য ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের প্রশংসা না করায় বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যদের সমালোচনা করে বক্তব্য দিলে চুন্নু এই মন্তব্য করেন।

    এর আগে মহাসড়ক বিল-২০২১ নিয়ে আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপি ও জাতীয় পার্টির বেশ কয়েকজন বিরোধী সাংসদ সাম্প্রতিক মারাত্মক সড়ক দুর্ঘটনা, নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি এবং পরিবহন খাতে দুর্নীতির জন্য সেতুমন্ত্রীর কড়া সমালোচনা করেন।

    সমালোচনার জবাবে ওবায়দুল কাদের বিরোধীদের শুধু বিরোধিতা নয়, সরকারের ভালো কাজের প্রশংসা করার আহ্বান জানান।

    সেতুমন্ত্রীর এই আহ্বানের জবাবে চুন্নু বলেন, বিরোধী দলের নেতারা সরকারের ভালো কাজের প্রশংসা করেন না, এটা ঠিক নয়। সরকারের প্রশংসা করার জন্য এখন মানুষ আমাদেরকে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দালাল বলে। সরকারের কত প্রশংসা করব? আমরা এখন সেই দালাল তকমা থেকে মুক্তি পেতে চাই। তার পরও যদি আপনারা খুশি না হন, তবে কিছুই করার নেই।

    বিএনপির সংসদ সদস্য রুমিন ফারহানা বলেছেন, রূপসী মেয়েদের মতো সরকার শুধু প্রশংসা শুনতে চায়। তারা ভুলে যায় যে এই কাজের জন্য ছয় কোটি টাকার বাজেট রয়েছে, প্রশংসার দরকার নেই। রুমিন আরও বলেন, সরকারের অন্যায়, দুর্নীতি ও অনিয়ম প্রকাশ করা বিরোধী দলের কাজ।

    স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রেজাউল করিম বলেন, বিরোধী দলের এমপিরা সব সময় সরকারের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হওয়ায় এ সংসদে বিরোধী দল কারা তা স্পষ্ট নয়।

    এর আগে জনমত যাচাইয়ের প্রস্তাব দিয়ে মুজিবুল হক বলেন, এই সরকার অনেক কাজ করেছে। কিন্তু ৭-৮ বছর ধরে টঙ্গী-গাজীপুর সড়কে ভয়াবহ অবস্থা। এখানে যাওয়া যায় না। ঘণ্টার পর ঘণ্টা আটকে থাকতে হয়। ইহজগতে এই রাস্তা হয়ে আর যাওয়া যাবে কি না, তা তিনি সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর কাছে জানতে চান।

    ঠিকানা/এনআই