প্রবাসে আঞ্চলিক সংগঠনের মডেল ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন

    নিউইয়র্ক : ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশনের নব-নির্বাচিত কর্মকর্তাদের শপথ। ছবি-ঠিকানা।

    ঠিকানা রিপোর্ট : ঐক্য থাকলে অসাধ্য সাধন করা যায়।’ এই প্রবাদ বাক্যের সত্যতা প্রমাণ করেছে প্রবাসের অন্যতম বড় আঞ্চলিক সংগঠন ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন। সকল বিভেদ ভুলে সংগঠনটির সবাই এখন ঐক্যবদ্ধ। হয়েছে নতুন কমিটি। আর সেই নতুন কমিটির বর্ণাঢ্য ও জমকালো অভিষেকে সবার স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি বাংলাদেশি কমিউনিটিকে একটি নতুন বার্তা দিয়েছে, তা হলো- ‘আসুন সবাই ঐক্যবদ্ধ হই।’ ঢাকা জেলাবাসীর এই ঐক্য এখন বাংলাদেশি কমিউনিটির অন্যান্য আঞ্চলিক সংগঠনের জন্য ‘মডেল’ হতে পারে, এমন অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন অনেকেই।
    গত ২১ নভেম্বর রোববার সন্ধ্যায় উডসাইডের কুইন্স প্যালেসে ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশনের অভিষেক ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ঢাকা জেলাবাসী ছাড়াও বাংলাদেশি কমিউনিটির বিশিষ্টজনেরা উপস্থিত ছিলেন।
    এ অনুষ্ঠাকে শুধু ঢাকা জেলাবাসীর ঐক্য প্রতিষ্ঠিত হয়নি, অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক সহিষ্ণুতারও দৃষ্টান্ত স্থাপিত হয়েছে। অনুষ্ঠানের মঞ্চে বিশেষ অতিথি হয়ে এসেছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি ড. সিদ্দিকুর রহমান এবং যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান জিল্লু। তাদের বক্তব্যেও ছিল একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা ও সম্মানের, যা সবার নজরে এসেছে।

    এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নিউইয়র্কে বাংলাদেশের ভারপ্রাপ্ত কনসাল জেনারেল এস এম নাজমুল হাসান। বিশেষ অতিথি হিসাবে মঞ্চে আরো ছিলেন নিউইয়র্ক সিটি নির্বাচনে কুইন্স কাউন্টি জাজ পদে বিজয়ী বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাটর্নি সোমা সাঈদ, ডাকসুর সাবেক সদস্য ও টেক্সাস আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুল আলম বরকত, বাংলাদেশে সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক রুহুল আমিন সিদ্দিকী, বাংলাদেশ সোসাইটির সহ-সভাপতি ও ক্রীড়া সংগঠল মহিউদ্দিন দেওয়ান, ফোবানার এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান জাকারিয়া চৌধুরী, নবাবগঞ্জ অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান উপদেষ্টা ও যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক মো. গিয়াস উদ্দিন, ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা ইঞ্জিনিয়ার ফারুক হোসেন, বদরুল খান বাদল, জেয়াদ হাবিব, শেখ সালাহ উদ্দিন খোকন, নিশাদ আজাদ খান, আমিন মেহেদী বাবু, আলাউদ্দিন আহমেদ, আমান উল্লাহ আমান প্রমুখ।

    অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বে ছিল নতুন কমিটির শপথগ্রহণ এবং শেষ পর্বে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সবার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় দুই কণ্ঠশিল্পী, যথাক্রমে ব্ল্যাক ডায়মণ্ড খ্যাত বেবী নাজনীন ও প্লেব্যাক খ্যাত রিজিয়া পারভীন। গভীর রাত পর্যন্ত ছোট-বড় সবাই উপভোগ করেন প্রিয় দুই শিল্পীর গান।

    নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপনের সহযোগিতায় অভিষেক কমিটির সদস্য সচিব গণেশ কীর্ত্তনীয়া ও সোনিয়া সিরাজ অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন।
    অভিষেক কমিটির আহ্বায়ক ও নবনির্বাচিত সিনিয়র সহ-সভাপতি কামাল হোসেন রাকিবের সভাপতিত্বে অভিষেক অনুষ্ঠানে নতুন কমিটির কর্মকর্তারা শপথ নেন। তাদের শপথ বাক্য পাঠ করান সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা ও মূলধারার রাজনীতিক গিয়াস আহমেদ। শপথ নেয়ার পর অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের নবনির্বাচিত সভাপতি আরিফ আহমেদ চৌধুরী।

    এ পর্বে অনুষ্ঠানের অতিথি ও উপদেষ্টাবৃন্দ ছাড়াও সংগঠনের বিভিন্ন দিক, বিশেষ করে সংগঠনকে গতিশীল ও কল্যাণমুখী করতে আলোচনা ও প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন সংগঠনের নবনির্বাচিত কর্মকর্তারা। অন্যান্যের মধ্যে আলোচনায় অংশ নেন অভিষেক অনুষ্ঠানের প্রধান সমন্বয়কারী উজ্জ্বল বিপুল, প্রধান পৃষ্ঠপোষক দুলাল বেহেদু, যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল আজিজ ও খায়রুল আলম, সমন্বয়কারী আব্দুর রাজ্জাক আনোয়ার, মোহাম্মদ আলী সবুজ, আজিজুর রহমান খান পান্না, মো. মিলন মোল্লা, পৃষ্ঠপোষক শেখ আব্দুল মালেক, আমির আফতাব, যুগ্ম সদস্য সচিব শাহজাহান মিয়া ডলার ও হামিদুল্লাহ হামিদ রকি।

    প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভারপ্রাপ্ত কনসাল জেনারেল এস এম নাজমুল হাসান বলেন, ঢাকা জেলার অনেক ইতিহাস ও ঐহিত্য রয়েছে। সেই ইতিহাস ও ঐতিহ্য প্রবাসে নতুন প্রজন্মের মাঝে তুল ধরতে হবে।

    প্রধান উপদেষ্টা গিয়াস আহমেদ ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন কল্যাণমুখী কাজে আত্মনিয়োগ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, শুধু অনুষ্ঠান করে অর্থ খরচ না করে ঢাকা জেলার একজন শিশুও যাতে নিরক্ষর না থাকে। এজন্য শিক্ষাবৃত্তি চালুর আহ্বান জানান তিনি। অনুষ্ঠানে অন্যান্য বক্তারা ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশনের সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, এই সংগঠনটি প্রবাসে অন্যান্য আঞ্চলিক সংগঠনের জন্য মডেল হতে পারে। সেই লক্ষ্যেই সবার কাজ করা উচিত।

    অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সামাদ আজাদ ও কার্যকরী সদস্য শাহানারা রহমান, বাংলাদেশ ক্লাব ইউএসএ’র সভাপতি, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ নূরুল আমিন বাবু, মানিকগঞ্জ সমিতির নেতা আব্দুল সালাম আজম, বিএনপি নেতা এবাদ চৌধুরী, যুবলীগ নেতা তারিকুল হায়দার চৌধুরী, যুবদল নেতা আবু সাঈদ আহমেদ, মূলধারার রাজনীতিক মিজান চৌধুরী, চট্টগ্রাম সমিতির সহ-সভাপতি মাসুদ সিরাজী, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জেড এ জয় প্রমুখ।

    অনুষ্ঠানের আহ্বায়ক কামাল হোসেন রাকিব বলেন, ঢাকা আমাদের গর্বের জেলা। আমাদের একে অন্যের সঙ্গে সুসম্পর্ক রয়েছে। বিশ্বাস রয়েছে। সেই বিশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশনের নতুন কমিটি হয়েছে। সবার সহযোগিতা পেলে ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশন অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

    অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে সংগঠনের সভাপতি আরিফ আহমেদ চৌধুরী ঢাকা জেলা অ্যাসোসিয়েশনকে এগিয়ে নিতে সবার ঐকান্তিক সহযোগিতা কামনা করেন। অনুষ্ঠান সফল করায় তিনি সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান। সবশেষে সাংস্কৃতিক পর্ব পরিচালনা করেন সোনিয়া সিরাজ ও মোস্তফা কামাল মুকুল। এ পর্বে প্রথমে গান পরিবেশন করেন শম্পা হক। পরে মঞ্চে আসেন বেবী নাজনীন। এরপর রিজিয়া পারভীন। মধ্যরাত পর্যন্ত তারা সঙ্গীত পরিবেশন করেন। সবশেষে জনপ্রিয় এই দুই শিল্পী মঞ্চে একসঙ্গে গান পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত সবাইকে মজাদার খাবার দিয়ে আপ্যায়ন করা হয়।