বাংলাদেশি কমিউনিটিতে থ্যাঙ্কসগিভিং ডে পালনের প্রস্তুতি

    ঠিকানা রিপোর্ট : ২৫ নভেম্বর বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে পালিত হবে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে। প্রতি বছরের নভেম্বর মাসের চতুর্থ বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রে দিনটি পালন করা হয়। এ দিনটিকে অনেকে দ্য টার্কি ডে বলে থাকেন। ঐতিহাসিকভাবে থ্যাংকস গিভিং ডে ধর্মীয় ও সাংস্কৃতিক একটা অনুষ্ঠান। যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারায় থ্যাঙ্কস গিভিং ডে’র যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে। তবে বাংলাদেশি কমিউনিটিতে দিন দিন গুরুত্ব বাড়ছে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে’র।
    থ্যাংকস গিভিং ডে’র মূল উদ্দেশ্য, পরিবার, প্রতিবেশী ও বন্ধুবান্ধবসহ সবাই এক হয়ে সবার জীবন এবং দেশ ও জাতির সাফল্যের জন্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ জানান। খাবারের তালিকায় থাকে টার্কি রোস্ট, ক্র্যানবেরি সস, মিষ্টি আলুর ক্যান্ডি, স্টাফিং, ম্যাশড পটেটো এবং ঐতিহ্যবাহী পামকিন পাই। টার্কি দেখতে ময়ূরের মতো বড় সাইজের বনমোরগ।
    দিসবটিতে ধনী-গরীব সবাই মেতে ওঠেন ঐতিহ্যবাহী টার্কি ভোজে। পারিবারিকভাবে প্রতিটি ঘরেই চলে টার্কি লাঞ্চ আর ডিনার। নিউইয়র্কের বাংলাদেশি কমিউনিটিতে বিভিন্ন সংগঠন ও পরিবার টার্কি পার্টির আয়োজন করে থাকে। গত বছর বৈশ্বিক মহামারী করোনার কারণে কোথায় কোথাও ঘরোয়াভাবে পার্টির আয়োজন করা হলেও প্রকাশ্যে কোনো অনুষ্ঠান হয়নি। তবে এ বছর বিভিন্ন স্থানে টার্কি পার্টি হবে বলে খবর পাওয়া গেছে। বাংলাদেশি রেস্টুরেন্টগুলো টার্কির অর্ডার পাচ্ছে।
    বাংলাদেশি রেস্টুরেন্ট মালিকরা জানান, এ বছর বেশকিছু টার্কি পার্টির অর্ডার পাওয়া গেছে। তবে তা অন্যান্য বছরের চেয়ে কম। আগাম অর্ডার ছাড়াও বৃহস্পতিবার রেস্টুরেন্টে টার্কির মাংস বিক্রি হবে। একটি পূর্ণ টার্কির দাম ১২০ থেকে ১২৫ ডলার হতে পারে। তবে করোনা মহামারীর পর টার্কির দাম প্রকার ভেদে কিছুটা বেড়েছে বলে জানা গেছে।
    থ্যাংকস গিভিং ডে’র ইতিহাস : ১৬২১ সালের এক হেমন্তে আমেরিকার আদি জনগোষ্ঠীর সঙ্গে প্রধানত ইংল্যান্ড থেকে আগত যাজকদের এক শুভক্ষণে পরস্পরের মধ্যে উৎপাদিত শস্য এবং পণ্য বিনিময়ের মধ্যদিয়ে ‘থ্যাংকস গিভিং’ উৎসবের সূত্রপাত হয়। এর ধারাবাহিকতায় ১৮৬৩ সালে প্রেসিডেন্ট আব্রাহাম লিংকন সেদিনের সেই বন্ধুত্ব এবং শান্তির অমিয়বাণী আমেরিকাবাসীর অন্তরে ধারণ করতে রাষ্ট্রীয়ভাবে দিনটিকে ‘থ্যাংকস গিভিং হলি ডে’ হিসেবে ঘোষণা করেন। সেই থেকে প্রতিবছর বন্ধুত্ব ও সংহতি প্রকাশের ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপটকে স্মরণীয় বরণীয় করে তুলতে নানা আয়োজনে মেতে উঠে সমগ্র যুক্তরাষ্ট্র।
    দিনটি আমেরিকায় সরকারি ছুটির দিন। একই আমেজে পার্শ্ববর্তী দেশ কানাডায় এ দিনটি পালন করা হয় প্রতিবছর অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় সোমবার।
    এদিকে থ্যাঙ্কস গিভিং ডে’তে নিউইয়র্কে প্যারেড বের করে সুপার স্টোর মেসিজ। প্রতি বছর নিউইয়র্কের সাড়ে ৩ মিলিয়নেরও বেশি লোক এবং যুক্তরাষ্ট্রের ৫০ মিলিয়ন লোক এই প্যারেড দেখেন। তারা সকলেই দৈত্যাকার বেলুন, এক ধরণের ভাসমান, আশ্চর্যজনক পারফরম্যান্স এবং আরও অনেক কিছু দেখার জন্য টিভি খুলে বসেন। বৈশিষ্ট্যযুক্ত পারফর্মারদের সঙ্গে থাকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সেরা মার্চিং ব্যান্ড এবং পারফরম্যান্স গ্রুপ।